ত্বকের জন্য খাবার
ত্বকের জন্য খাবার

ত্বকের জন্য খাবার রয়েছে যেগুলো নিয়মিত খাওয়া উচিত, যদি ত্বক সুস্থ, সুন্দর কোমল রাখতে চাই। এমন কিছু পুষ্টিকর খাবার যা শরীরের উপকার করার পাশাপাশি ত্বক ভালো রাখে। এখানে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে যেসব খাবার তার বর্ণনা করা হবে, জানতে পুরো আর্টিকেলটি পড়ুন।

ত্বকের উজ্জ্বলতা কে না চাই, ছেলে মেয়ে সবাই চাই ত্বকের উজ্জ্বলতা ও সৌন্দর্য বৃদ্ধি করার জন্য। শুধু চাইলেই হবে না, অবশ্যই ত্বকের সঠিক যত্ন ও পরিচর্যা করতে হবে। তাছাড়া ত্বকের যত্ন না করলে অনেক ধরনের সমস্যা ও দেখা দিতে পারে। অর্থাৎ ত্বকের স্বাস্থ্যের ভালোভাবে পরিচর্যা না করলে ত্বক সুন্দর তো হবেই না আরও আরও বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দিয়ে বাজে অবস্তা ও হয়ে যেতে পারে। উজ্জ্বল, দাগহীন ত্বক আমাদের সকলেরই কাম্য। আমাদের পুরো শরীরের মধ্যে মুখের সৌন্দর্যই সর্বপ্রথম প্রকাশ পায়। তাই অবশ্যই ত্বকের যত্ন নিতে হবে এবং ত্বকের সৌন্দর্য ধরে রাখার জন্য অবশ্যই কিছু খাবার খেতে হবে।

অর্থাৎ এমন কিছু খাবার আছে যেগুলো ত্বক কে কোমন ও মসৃণ রাখে এবং উজ্জ্বলতা আরও বাড়ায়। তাহলে জেনে নিন বিস্তারিতভাবে ও কার্যকরী তথ্যের সাথে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে যে ৭টি খাবার।

ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে যে ৭টি খাবার

০১। বিশুদ্ধ পানি
০২। আপেল
০৩। গাজর
০৪। কলা
০৫। বাদাম
০৬। মাছ
০৭। গ্রিন টি

০১। বিশুদ্ধ পানি

পানির অপর না জীবন এইটা আমরা সবাই জানি। তারপরে ও কিছু মানুষ আছে যারা পানি পর্যাপ্ত খাই না আর খেলে ও আদৌ বিশুদ্ধ কিনা যাচাই করে না। একটা কথা মনে রাখবেন সবসময় শরীর ও ফিটনেসের জন্য ত্বকের জন্য বিভিন্ন রোগ প্রতিরোধ করার জন্য যে খাবারই খান না কেন, যদি পরিষ্কার ও ভেজাল মুক্ত না থাকে তাহলে উপকারের চেয়ে ক্ষতিই করবে। তাই পানি খাওয়ার ব্যপারেও সচেতন হতে হবে। আর হ্যাঁ দৈনিক বিশুদ্ধ পানি পর্যাপ্ত খেলে ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো রাখে ও ত্বককে আরও কোমল ও মসৃণ রাখে। একজন সুস্থ সবল মানুষকে প্রতিদিন কমপক্ষে ২ লিটার পানি পান করা আবশ্যক। পানি পেলে ত্বকের কোষে পানি পৌঁছায় এবং ত্বক সজীব দেখায়। এবং আপনার যদি তকে দাগ থাকে, তাহলে এটি কমাতে ও সাহায্য। শরীর থেকে বিষাক্ত উপাদান ঘামের মাধ্যমে বের করে দেয় পানি।

০২। আপেল

পানীয় খাবারের মধ্যে আপেল অন্যতম ও জনপ্রিয়। খুব পুষ্টিকর একটি খাবার যা সবাই খেতে পছন্দ করে। তুকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করার জন্য আপেল গুরুত্বপূর্ণ ও কার্যকরী ভূমিকা রাখে। আপেলে প্রায় ৮০% পানি থাকে যা শরীরের জন্য অতিব দরকারি। আপেলের মধ্যে রয়েছে ভিটামিন সি সহ কে, ই, ক্যালসিয়াম, আয়রন, ফসফরাস, পটাশিয়াম আরও অনেক ধরনের পুষ্টিগুন রয়েছে। আপেল যে শুধু ত্বকের উজ্জ্বলতা ফিরিয়ে আনে তা নয়, রুক্ষ হয়ে যাওয়া ত্বকের প্রাণ ফিরিয়ে আনে। তাই ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো রাখতে, ত্বক কোমল , সৌন্দর্য ও আর আকর্ষণীয় করে তুলতে নিয়মিত একটি করে আপেল খেতে পারেন। যথেষ্ট কার্যকরী ও সঠিক উপকার গুলো পাবেন আপেল থেকে।

০৩। গাজর

আমরা সবাই জানি গাজরকে সুপার ফুড বলা হয়। গাজরের রয়েছে অনেক বিস্ময়কর উপকারিতা যা শরীর স্বাস্থ্য ভালো রাখতে, ত্বক সুস্থ ও সতেজ রাখতে ও বিভিন্ন ধরনের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে বিশেষ ভূমিকা রাখে। গাজরে রয়েছে শক্তি, শর্করা, চিনি, খাদ্যে ফাইবার, প্রোটিন, ভিটামিনসমূহ ভিটামিন এ সমতুল্য, বেটা ক্যারোটিন, লুটিন জিজানথেন, থায়ামিন (বি১), রিবোফ্লাভিন (বি২), ন্যায়েসেন (বি৪প্যানটোথেনিক অ্যাসিড (বি৫), ভিটামিন বি৬, ফোলেট (বি৯), ভিটামিন সি, ভিটামিন ই, চিহ্ন ধাতুসমুহ, ক্যালসিয়াম, লোহা, ,ম্যাঙ্গানিজ , ফসফরাস, পটাশিয়াম, সোডিয়াম। এইজন্যই এটির একটি পুষ্টিগুণ সম্পন্ন খাবারের মধ্যে অন্যতম। এটিতে প্রচুর পরিমাণে বিটা ক্যারোটিন আছে যা শরীরে গিয়ে ভিটামিন এ তে পরিণত হয়। নিয়মিত গাজর খেলে আপনার ত্বকে রাখবে সজীব ও উজ্জ্বল। গাজর ত্বকের টিস্যু গুলোকে মেরামত করে এবং ক্ষতিকর সূর্য রশ্মির থেকে ত্বক কে রক্ষা করতে সহায়তা করে।

০৪। কলা

কলা ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে। কলাতে প্রায় ৭০.১% পানি রয়েছে যা ত্বক সুস্থ, সুন্দর, সতেজ ও কোমল করতে সাহায্য করে থাকে। বহুল পুষ্টিগুণ সম্পন্ন ও স্বাস্থ্যকর খাবারের মধ্যে কলা অতুলনীয় একটি ফল। কলা শুধু বাংলাদেশে নয়, সারা বিশ্বব্যাপী একটি জনপ্রিয় ফল। কলার রয়েছে অসাধারণ উপকারিতা। কারণ এটি বিভিন্ন গুণাগুণে সমৃদ্ধ একটি ফল। এতে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের ভিটামিন, আমিষ ও খনিজ পদার্থসহ আরও কিছু উপাদান এবং এটিতে ক্যালরি পাওয়া যাই যতেষ্ট পরিমাণে। অল্প বয়সে অনেকের ত্বকে বয়স্ক ছাপ পড়ে যায়, সঠিক ভাবে যত্ন না করলে নানান সমস্যা দেখা দেয়। এর ফলে ত্বকের সৌন্দর্য, উজ্জ্বলতা যেমন নষ্ট হয় ঠিক বিভিন্ন রোগ হয়ে থাকে যা শরীর স্বাস্থ্যের জন্য হুমকি সরূপ। এইজন্য নিয়মিত ফরমালিন মুক্ত পাকা কলা খেতে পারেন।

০৫। বাদাম

মাত্র ১০০ গ্রামে বাদাম খেলে অনেক উপকার পাওয়া যায়। বাদামে রয়েছে এমন সব উপাদান যা ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা দূর করে উজ্জ্বলতা বাড়িয়ে দেয় বহুগুন। ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে ও সুস্থ রাখতে বাদামের বিকল্প নেই। কারণ এটিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ই, ভিটামিন সি, প্রোটিন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, লৌহ, ফাইবার, ফসফরাস, পটাশিয়াম, সোডিয়াম সহ আরও অনেক ধরনের কার্যকরী উপাদান। বাদাম ওমেগা-৩ ফ্যাটি এসিড এবং ভিটামিন ই এর একটি অন্যতম উৎস। নিয়মিত খাবারের তালিকায় বাদাম রাখলে এর ভিটামিন ই ত্বককে আরো সজীব ও মোহনীয় করে তুলবে। আর বাদাম দামে ও সস্থা ও সবসময় পাওয়া যায়। তাই খুব সহজেই আপনি বিভিন্ন ধরনের ভালো বাদাম সংগ্রহ করে খেতে পারেন, যথেষ্ট উপকার পাবেন।

০৬। মাছ

হ্যাঁ ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধিতে মাছ ও অনেক ভূমিকা পালন করে। মাছ আমাদের শরীরের জন্য উপকারি। পুষ্টিকর খাবার তালিকার মধ্যে মাছকে অবশ্যই রাখতে হবে। কেননা এটিতে রয়েছে অনেক ধরনের কার্যকরী উপাদান ও পুষ্টিগুণ। ওমেগা ৩ ফ্যাট সমৃদ্ধ মাছ ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। এই মাছ ত্বকের কোষ সজীব রাখে এবং ত্বককে ক্যান্সারের থেকে রক্ষা করে। তবে অতিরিক্ত তেল দিয়ে ভাজা মাছ না নেয়ে সেদ্ধ, গ্রিল করা অথবা সেঁকা তেলে ভাজা মাছ খাওয়ার চেষ্টা করুন। তাহলে ভালো ত্বকের জন্য ভালো ও সঠিক উপকার পাবেন।

০৭। গ্রিন টি

শরীর স্বাস্থ্য ভালো ও সতেজ রাখতে উৎফুল্ল রাখতে প্রতিদিন সকালে ও বিকালে গ্রিন টি খেতে পারেন। গ্রিন টি খাওয়ার অনেক সুবিধা রয়েছে। ত্বক ভালো রাখতে গবেষকেদের পরামর্শ হচ্ছে গ্রিন টি পান করা। ২০১১ সালে ‘জার্নাল অব নিউট্রিশনে’ প্রকাশিত এক গবেষণা নিবন্ধে বলা হয় যারা ১২ সপ্তাহ ধরে দৈনিক গ্রিন টি পান করেন তাদের ত্বক বেশি মসৃণ ও নমনীয় হয়। এ ছাড়াও সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি থেকে ত্বক রক্ষা পায়। চা বা কফি শরীরে পানি শূন্যতার কারণ হতে পারে। গ্রিন টি হল একটি হারবাল পানীয় যা ত্বকের জন্য অনেক ভালো। এটি ত্বকের পোড়া দাগ দূর করে, ত্বক নরম রাখে, ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করে, ত্বকের গভীর কালো দাগ দূর করে। গ্রিন টিতে থাকা অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ত্বকে রক্তের প্রবাহ বাড়াতে সাহায্য করে এবং ত্বক সুস্থ রাখে। তাই চেষ্টা করবেন কাজে ফাঁকে অথবা সকালে ব্রেকফাস্ট করার ও বিকালে ঘুম থেকে উঠার পর এক কাপ গ্রিন টি খাওয়ার।

আরও জানুন –

চুলের পুষ্টি ও উপকারের জন্য ১০টি খাবার

শরীরের পানিশূন্যতা দূর করবে যেসব খাবার

নিয়মিত গাজর খাওয়ার ১০টি বিস্ময়কর উপকারিতা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here