খালি পেটে কি খাবেন
সকালে উঠে খালি পেটে কি খাবেন ও কি খাবেন না

খালি পেটে কি খাবেন ও কি খাবেন না, এই সম্পর্কে আমাদের পর্যাপ্ত ধারণা নেই। যার ফলে শরীর সাস্থ্য ভালো রাখতে বা ফিটনেস উন্নত করতে পারি না ও বিভিন্ন ধরনের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ও বৃদ্ধি করতে পারি না।

এইজন্য আপনাদের অবশ্যই জানা উচিত সকালে উঠে খালি পেটে কি খাবেন ও কি খাবেন না। বিস্তারিত জানতে পুরো শেষ পর্যন্ত পড়ুন।

সকালে ঘুম থেকে উঠেই ক্ষুধা লেগে যায়। অধিকাংশ মানুষ খুব বেশি বাছবিচার না করে যেইটা সামনে থাকে, সেইটাই খেয়ে ফেলে। শরীরের জন্য এটি একদমই ঠিক না। খালি পেটে আমরা অনেক কিছুই খেয়ে ফেলি যা শরীরের জন্য ক্ষতিকর। সকালে ঘুম থেকে উঠে কেউ দিন শুরু করে মধু দিয়ে, আবার কেউ বা কালো জিরা বাদাম বা আদা ও চা দিয়ে। আবার কিছু মানুষ আছে যারা খালি পেটে বারি খাবার খেতে পছন্দ করে।

প্রকৃতপক্ষে, আমাদের জানা আছে কী, ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে কি খেলে সারাদিন শরীরটা সুস্থ, সবল ও ভালো থাকবে? গবেষণায় দেখা গেছে, কিছু খাবার খালি পেটে খাওয়াকে ক্ষতিকর হিসেবে চিহ্নিত করেছে। আবার কিছু খাবার প্রকৃতই শরীর কে ভালো রাখে।

তাহলে জেনে নেওয়া যাক, কোন খাবার গুলো খালি পেটে খাওয়া উচিত এবং কোন খাবার গুলো বর্জন করা উচিত।

খালি পেটে যেসব খাবার খাবেন

০১। পানিঃ

প্রতিদিন সকালে ঘুম থেকে উঠেই প্রথমে ১/২ গ্লাস বিশুদ্ধ পানি পান করুন। খালি পেটে পানি খাওয়ার অনেক উপকারিতা রয়েছে। সকালে খালি পেটে পানি পান করলে হজম ক্ষমতা বৃদ্ধি পায় ও এর প্রক্রিয়া সহজ হয়। রক্তের দূষিত পদার্থ বের হয়ে যায়, অ্যাসিডিটি থাকে না এবং বুমির ভাব, গলার সমস্যা ও মাসিকের সমস্যা দূর করতে সাহায্য করে। ডায়রিয়া, কিডনির সমস্যার, মাথা ব্যথা ইত্যাদি অসুখ কমাতে সহায়তা করে। নতুন মাংসপেশী ও কোষ তরান্বিত হয়। এতগুলো কার্যকরী উপকার শুধু বিশুদ্ধ পানির মধ্যেই পাবেন। তাই অবশ্যই সকালে ঘুম থেকে উঠে সর্বপ্রথমই আপনাকে ১/২ গ্লাস পানি পান করা উচিত।

০২। ভেজানো কাঠ বাদামঃ

প্রতিদিন সকালে খালি পেটে ১০/১২ টি বা এক মুঠো ভিজানো কাঠ বাদাম খেতে পারেন। এতে অনেক বিস্ময়কর উপকারিতা পাবেন যা আপনার শরীরকে সারাদিন সুস্থ ও সবল রাখবে। সকালে খালি পেটে কাঠ বাদাম খেলে সারাদিন সতেজ থাকতে পারবেন।

কাঠ বাদামে ভিটামিন ও খনিজ উপাদানে ভরপুর। পানিতে ভিজিয়ে রাখলে এর পুষ্টিগুণ আরও বৃদ্ধি পায় এবং খেতে ও অনেক ভালো লাগে। এটি শরীরের দুর্বলতা হ্রাস করে এবং যৌন শক্তি বৃদ্ধি করে। তার জন্য রাতে ১০/১২ টি বাদাম ভিজিয়ে রাখবেন এবং ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে খেয়ে ফেলবেন।

০৩। ভেজানো কাঁচা ছোলাঃ

আমরা হইতো কম বেশি জানি যে, সকালে খালি পেটে ছোলা খাওয়ার কিছু উপকারিতা রয়েছে। উচ্চমাত্রার প্রোটিন ও ভিটামিন সমৃদ্ধ খাবার হচ্ছে কাঁচা ছোলা। বিশেষজ্ঞ পুষ্টিবিদের মতে, কাঁচা ছোলা ভিজিয়ে খেলে শরীরের শক্তি যোগায়, বল যথেষ্ট বৃদ্ধি করে, রক্তচাপ কমাতে বা নিয়ন্ত্রণ করতে বিশেষ ভূমিকা রাখে, রক্তের চর্বি কমায়, রুচি বাড়ায় এবং হৃদরোগের ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করে। এছাড়াও কাঁচা ছোলার অনেক উপকারিতা রয়েছে। ১ দিন পর পর ২০/২৫ টি ভালো কাঁচা ছোলা রাতে ভিজিয়ে রেখে সকালে খেতে পারেন।

০৪। ভেজানো কিচমিচ ও এর পানিঃ

সকালে খালি পেটে খাওয়ার মধ্যে সর্ব উত্তম খাবার হচ্ছে ভেজানো ১০/১৫ টি কিসমিস ও এর পানি। অনেকেই হয়তো জানেন না কিসমিস একটি স্বাস্থ্যগুণ সম্পন্ন খাবার। কিসমিসের জল লিভার পরিষ্কার রাখতে সাহায্য করে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, কিস ভেজানো জল খেলে শরীরে জৈব রাসায়নিক প্রক্রিয়া শুরু হয়। যার ফলে রক্ত পরিশোধিত হতে শুরু করে। (সূত্রঃ কালের কন্ঠ) এটি ওজন বাড়াতে, শরীরের দুর্বলতা দূর করতে আরও বিভিন্ন ধরনের রোগ প্রতিরোধ করতে এক বিশেষ ভূমিকা রাখে। সঠিক ও পর্যাপ্ত উপকারিতা পেটে সপ্তাহে ৩ দিন বা ১ দিন পর পর খাওয়ার চেষ্টা করুন।

০৫। মধুঃ

প্রতিদিন সকালে মধু খাওয়ার রয়েছে যথেষ্ট উপকারিতা। দুঃখজনক হলে সত্য যে, মধু আমরা নিয়মিত খাই না, অনেকে তো কবে খেয়েছেন সেইটা ও খেয়াল নেই। কিন্ত প্রাকৃতিক ও বিশুদ্ধ মধু আমাদের বিভিন্ন ধরনের রোগ প্রতিরোধ করে শরীর সাস্থ্য ভালো রাখতে যথেষ্ট ভূমিকা রাখে। প্রতিদিন সকালে এক চামচ মধু খেলে ঠাণ্ডা, কফ, কাশি থাকে না। এক গ্লাস পানিতে এক চা চামচ মধু মিশিয়ে পান করলে অনেক রোগ বালাই থেকে মুক্তি পাওয়া যায় বিশেষ করে অ্যাসিডিটি থেকে মুক্ত পেটে সাহায্য করে।

সকালে খালি পেটে এক গ্লাস কুসম গরম পানিতে এক চামচ মধু ও সাথে লেবুর রস মিশিয়ে খেলে ওজন কমে ও যকৃত পরিষ্কার থাকে। এবং ব্রেইনের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করতে ও সহায়তা করে। শীতকালে প্রতিদিন খেলে ভালো ফল পাওয়া যায়।

০৬। খেজুরঃ

সকালে খালি পেটে খেজুর খাওয়া যেতে পারে। খেজুরের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে কম বেশি সবারই কিছু ধারণা আছে। এটিতে প্রচুর দ্রবণীয় ফাইবার ও আঁশ থাকে যা কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। হজম প্রক্রিয়া সহজ করে, হাড় মজবুত করে, হৃদপিণ্ডের ক্ষমতা বাড়াতে ও সাহায্য করে। শরীরের সোডিয়াম, পটাশিয়ামের সমতা রক্ষা করে। নিয়মিত ২/৩ টা ভালো খেজুর খাওয়ার চেষ্টা করুন।

০৭। তরমুজঃ

খালি পেটে তরমুজ খাওয়া যাবে। এতে রয়েছে ভিটামিন এ ও সি পাবে। এটিতে যদিও ক্যালরি কম, তবে এর অন্যান্য উপাদান দেহের অনেক উপকার করে থাকে। তরমুজ রক্ত পরিষ্কার রাখে, রক্তের স্বাভাবিক কার্যপ্রণালী বজায় রাখে। এছাড়াও আরও বিভিন্ন ধরনের কাজ করতে সক্ষম। তাই আপনি চাইলে সকালে খালি পেটে তরমুজ খেতে পারেন।

গুরুত্বপূর্ণ কথাঃ

উপরোক্ত সব খাবারই সকালে খালি পেটে খেতে পারবেন, কোন সমস্যা হবে না। তবে ঘুম থেকে উঠেই সর্ব প্রথমে ২/৩ গ্লাস পানি খেয়ে নিবেন। অবশ্যই প্রথমে বিশুদ্ধ পানি খাওয়া উচিত তার পর অন্যকিছু খাওয়ার চেষ্টা করবেন।

খালি পেটে যেসব খাবার খাবেন না

০১। চা অথবা কফিঃ

সকালে ঘুম থেকে উঠেই আমরা চা বা কফি খেয়ে থাকি, যা শরীরের জন্য যথেষ্ট ক্ষতিকর। চা/কফি শরীরের ক্লান্তি দূর করে, কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করে ঠিক আছে কিন্ত তারমানে খালি পেটে খাওয়া যাবে না। মনে রাখবেন, সঠিক সময়ে সঠিক খাবার না খেলে, উপকারের চেয়ে ক্ষতি হতে পারে। খালি পেটে চা কফি খেলে অনেক সমস্যা হতে পারে।

যেমনঃ খালি পেটে চা খেলে শরীরে সেরাটোনিনের কমতি ঘটায়, ফলে সারা দিন মন-মেজাজ খারাপ থাকতে পারে। এটি বুকের মধ্যে জ্বালাপোড়া সৃষ্টি করে, হজমে ব্যাঘাত ঘটায়। কিছু না খেয়ে গরম চা পেটে খেলে নানান সমস্যায় পড়তে পারেন। তাই চা খাওয়ার আগে হালকা নাস্তা অবশ্যই করে নিন।

০২। কলাঃ

পাকা কলা খাওয়ার উপকারিতা রয়েছে যথেষ্ট। শরীর সাস্থ্য ভালো রাখতে এর ভূমিকা অনন্য। কিন্ত সঠিক সময়ে না খেলে ভালোর চেয়ে আরও ক্ষতি হতে পারে।

হজমসহায়ক কলায় রয়েছে প্রচুর ম্যাগনেশিয়াম ও পটাশিয়াম। খালি পেটে কলা খেলে এসব উপাদান রক্তে অন্য উপাদানগুলোর মধ্যে ভারসাম্য নষ্ট করে। বিশেষ করে শরীরে ম্যাগনেশিয়াম ও ক্যালসিয়ামের ভারসাম্য নষ্ট হয়, যা হৃৎপিণ্ড ও রক্তের ধমনির জন্য ক্ষতিকর। (সূত্রঃ প্রথম আলো)
এইজন্য ঘুম থেকে যাদের কলা খাওয়ার অভ্যাস রয়েছে, এটি বর্জন করুন, যদি শরীর সাস্থ্য ভালো রাখতে চান।

০৩। সোডাঃ

যদিও সকালে ঘুম থেকে উঠে সোডা খাওয়ার অভ্যাস তেমন কারোর নেই, তারপরেও জেনে রাখা ভালো যে খালি পেটে সোডা খাওয়া যাবে না। এবং যারা ভুলবশতও মাঝে মাঝে খেতেন এখন থেকে সাবধান হয়ে যান। কারণ সোডার মধ্যে রয়েছে উচ্চ পরিমাণ কাবোর্নেটট এসিড। খালি পেটে সোডা খেলে এই এসিড সাস্থ্যের সমস্যা তৈরি করে এবং বমিবমি ভাব তৈরি করে। এর ফলে দেহ মারাত্মক ভাবে সমস্যাউ পড়তে পারে।

০৪। টমেটোঃ

খালি পেটে টমেটো খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। টমেটোর মধ্যে রয়েছে প্রচুর পেকটিন ও ট্যানিক অ্যাসিড। খালি পেটে টমেটো খাওয়ার ফলে পেকটিন ও ট্যানিক অ্যাসিডের সঙ্গে গ্যাষ্ট্রিক অ্যাসিডের ব্রিক্রিয়া ঘটে থাকে। এর ফলে পাকস্থলীতে সমস্যা হয়। এবং এটি পরবর্তীতে পাকস্থলীতে পাথর সৃষ্টি করে। তাই অবশ্যই সকালে টমেটো খাওয়া বর্জন করা উচিত।

০৫। মিষ্টি জাতীয় খাবারঃ

মিষ্টি জাতীয় খাবার সকালে একদমই না করতে হবে। খালি পেটে খেলে অনেক ক্ষতিকরতে পারে। তাই এটি বর্জন করা উচিত। মিষ্টি, মিঠাই, সন্দেশ, রসমলাই, গুড়, চিনি খালি পেটে খেলে, গ্যাস হওয়ার সম্ভবনা থাকে, যা পরবর্তীতে আলসারের মতো রোগ সৃষ্টি করতে পারে।

আশা করি, সকালে খালি পেটে কি খাবেন ও খাবেন না, এই সম্পর্কে বিস্তারিত ও কার্যকরী তথ্য পেয়েছেন।

আরও জানুন –

সকালে ঘুম থেকে উঠে যে ৭টি কাজ করা উচিত

স্মার্ট হওয়ার ১০টি সহজ ও কার্যকরী উপায়

অনলাইনে ক্যারিয়ার গড়ার সুবিধা অসুবিধা ও ক্ষেত্রগুলো জেনে নিন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here